সিরাজগঞ্জে নির্মিত হলো দৃষ্টিনন্দন মসজিদ, দর্শনার্থীদের ঢল

0
74

সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে ব্যক্তি উদ্যোগে নির্মিত হয়েছে দৃষ্টিনন্দন আল-আমান বাহেলা খাতুন জামে মসজিদ। আধুনিক নির্মাণশৈলীতে গড়ে তোলা মসজিদটি যে কারও দৃষ্টি কাড়ে। নির্মাণে ব্যবহার করা হয়েছে বিভিন্ন দেশ থেকে আমদানি করা মার্বেল পাথর ও টাইলস। সৌন্দর্য উপভোগ করতে প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ছুটে আসছে নানা বয়সী মানুষ। ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা দৃষ্টিনন্দন এই মসজিদে নামাজ আদায় করতে পেরে আনন্দ প্রকাশ করেন।

বেলকুচির আল আমান বাহেলা খাতুন মসজিদে একসঙ্গে প্রায় ৭ হাজার মানুষ নামাজ পড়তে পারেন। শুধু বিশাল আয়তনই নয়, এর নির্মাণশৈলী এবং পুরো চত্বরের দৃশ্য দৃষ্টি আকর্ষণ করে সকলের।

মসজিদের ভেতরে বাইরে ভারত, ইতালি ও তুরস্ক থেকে আনা মার্বেল পাথর ও গ্রানাইট পাথরে মোড়ানো। এ ছাড়া চীন থেকে আনা হয়েছে বড় বড় ঝাড়বাতি।

২০১২ সালের সেপ্টেম্বর মাসে কাজ শুরু হয়ে দীর্ঘ ৯ বছরে নির্মাণ করা হয় এই মসজিদটি। বেলকুচি উপজেলার ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আলী সরকারে ব্যক্তিগত অর্থায়নে এক একর জমির ওপর তার ছেলে আল-আমান ও মা বাহেলা খাতুনের নামে ‘আল-আমান বাহেলা খাতুন জামে মসজিদ’ নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। কিন্তু ২০২০ সালের ২ আগস্ট মসজিদটি উদ্বোধনের আগেই তিনি মৃত্যুবরণ করেন। পরে তার ছেলেরা নির্মাণকাজ শেষ করেন।

মুসল্লিদের অজু করার জন্য আধুনিক অজুখানা রয়েছে এখানে। মসজিদের প্রধান ফটকের সামনে সিঁড়ির দু’পাশে রয়েছে পানি রাখার বড় বড় ২টি পাত্র। স্বয়ংক্রিয়ভাবে ফিল্টার হয়ে সেখানে পানি জমা হয়। পরিমাণে কমে গেলে আপনা আপনিই ভরে যায় পাত্রগুলো।

মসজিদটিতে পুরুষদের পাশাপাশি নারীদের নামাজ আদায়ের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। মসজিদটি পরিচালনা রয়েছে ২ জন ইমাম ও ৬ জন খাদেম।

দিনের আলোতেই শুধু নয়, রাতের বেলাতেও সৌন্দর্যের কমতি নেই। চলতি বছরের ২ এপ্রিল জুমার নামাজের মধ্য দিয়ে এটি উদ্বোধন করা হয়।

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here