কাঁচামরিচের কেজি ১৬০ টাকা

কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলায় হঠাৎ বেড়েছে কাঁচামরিচের ঝাঁজ।

শনিবার উপজেলার বিভিন্ন বাজারে বর্তমান খুচরা বাজারে কাঁচামরিচ বিক্রি হচ্ছে প্রতিকেজি ১৬০ টাকা দরে। ক্রেতাদের অভিযোগ হঠাৎ করেই বাজারে কাঁচামরিচের দাম কেজিতে ৭০-৮০ টাকা বেড়েছে।

এদিকে ব্যবসায়ীরা কৃত্রিম সংকট তৈরি করে অধিক মূল্যে মরিচ বিক্রি করছে বলে ক্রেতাদের দাবি। তবে ব্যবসায়ীরা বলছেন, আমদানি কম থাকায় কাঁচামরিচের দাম বেড়েছে। আমদানি কম হলে দাম আরও বাড়তে পারে বলে ব্যবসায়ীদের ধারণা।

শনিবার উপজেলা শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত থানাহাট বাজারের পাইকারী সবজি ব্যবসায়ী ছকমল হোসেন বলেন, গেল বন্যায় কিছু কিছু এলাকার মরিচের গাছ পানিতে পচে যাওয়ায় এবং মরিচের সরবরাহ কমে যায়। এতে বাজারে কাঁচামরিচের দাম ওঠানামা করছে। বাইরে থেকে বাজারে ঠিকমত মরিচ এলে দাম কমে, আর না এলে দাম বেড়ে যায়।

উলিপুর, রাজারহাট, বড়বাড়ীসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে মরিচ নিয়ে এসে ব্যবসায় করছেন বলে জানান তিনি।

থানাহাট বাজারের সবজি ব্যবসায়ী আবু বক্কর সিদ্দিক, শাহ আলম ও নান্টুসহ অনেকে জানান, গত কয়েকদিনে কাঁচামরিচের দাম ৭০-৮০ টাকা বেড়েছে। আজ আমরা পাইকারি মূল্যে ১৫০ টাকা কেজি হারে মরিচ কিনেছি। আর ক্রেতাদের নিকট খুচরা বিক্রি করছি ১৬০ টাকা দরে।

বাজারে আসা সবজি ক্রেতা মাহফুজার রহমান ও মিজানুর রহমান বলেন, গত কয়েক দিন আগে কাঁচামরিচের কেজি কিনেছি ৮০ টাকা দরে। আজ সে মরিচ কেজিতে ৮০ টাকা থেকে বেড়ে ১৬০ টাকা হয়েছে।

সরবরাহ সংকটের কথা বলে বেশি দামে মরিচ বিক্রি করলেও বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বাজারের প্রতিটি দোকানে পর্যাপ্ত মরিচ রয়েছে। কয়েকদিনের ব্যাবধানে কীভাবে কেজিতে ৮০ টাকা বাড়ল এর কোনো সঠিক জবাব নেই ব্যবসায়ীদের কাছে বলেও জানান তারা।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাহবুবুর রহমান যুগান্তরকে বলেন, বাজারগুলোতে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে বাজার মনিটরিং করা হচ্ছে। বাজারে কাঁচামরিচের মূল্যবৃদ্ধির বিষয়টি আমার জানা নেই, খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করা

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here