মাকে মারধর করায় ছেলেকে পুলিশে দিল এলাকাবাসী

0
301

গাছের সঙ্গে হাত-পা বেঁধে গর্ভধারিণী মাকে পিটিয়েছে সন্তান। নির্মম ঘটনাটি গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরের টুবরিপাড়ার। এমন ঘটনায় স্থানীয়রা বিক্ষুব্ধ হয়ে ছেলে নাছিরকে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে। 

সাদুল্লাপুর উপজেলার দামোদরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এ. জেড. এম সাজেদুল ইসলাম স্বাধীন জানান, শনিবার (২০ মার্চ) সকালে তিনি মোবাইলে জানতে পারেন টাকা না পেয়ে নাছির নামের এক যুবক তার মাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে পেটাচ্ছে। তাৎক্ষণিক তিনি গ্রাম পুলিশ পাঠিয়ে নাছিরের হাত থেকে তার মা নছিরন বেওয়াকে উদ্ধার করেন। 
এ সময় এলাকার বিক্ষুব্ধ লোকজন নাছিরকে আটক করে। পরে সাদুল্লাপুর থানা পুলিশ তাকে নিয়ে যায়। নাছির দীর্ঘদিন ধরে মাদকাসক্ত বলে দাবি এলাকাবাসীর।

ভাঙ্গামোড় টুবরিপাড়ার বাসিন্দা কৃষক মজনু মিয়া জানান, নাছির প্রায়ই তার মায়ের সঙ্গে এমন আচরণ করে থাকে। ২০০৪-০৫ সালের দিকে একটি ডাকাতি মামলায় গ্রেফতার হওয়ার পর থেকে তার মানসিক সমস্যা দেখা দেয়। 

সাদুল্লাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাসুদুর রহমান সময় সংবাদকে বলেন, খবর পাওয়ার পরপরই পুলিশ নাছিরকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এ ঘটনায় পরিবারের কেউ থানায় কোনো অভিযোগ করতে আসেনি। পরে পুলিশ বাদী হয়ে ১৫১ ধারায় নাছিরের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করে এবং তাকে পরে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

গাছের সঙ্গে হাত-পা বেঁধে গর্ভধারিণী মাকে পিটিয়েছে সন্তান। নির্মম ঘটনাটি গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরের টুবরিপাড়ার। এমন ঘটনায় স্থানীয়রা বিক্ষুব্ধ হয়ে ছেলে নাছিরকে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে। 

সাদুল্লাপুর উপজেলার দামোদরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এ. জেড. এম সাজেদুল ইসলাম স্বাধীন জানান, শনিবার (২০ মার্চ) সকালে তিনি মোবাইলে জানতে পারেন টাকা না পেয়ে নাছির নামের এক যুবক তার মাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে পেটাচ্ছে। তাৎক্ষণিক তিনি গ্রাম পুলিশ পাঠিয়ে নাছিরের হাত থেকে তার মা নছিরন বেওয়াকে উদ্ধার করেন। 
এ সময় এলাকার বিক্ষুব্ধ লোকজন নাছিরকে আটক করে। পরে সাদুল্লাপুর থানা পুলিশ তাকে নিয়ে যায়। নাছির দীর্ঘদিন ধরে মাদকাসক্ত বলে দাবি এলাকাবাসীর।

ভাঙ্গামোড় টুবরিপাড়ার বাসিন্দা কৃষক মজনু মিয়া জানান, নাছির প্রায়ই তার মায়ের সঙ্গে এমন আচরণ করে থাকে। ২০০৪-০৫ সালের দিকে একটি ডাকাতি মামলায় গ্রেফতার হওয়ার পর থেকে তার মানসিক সমস্যা দেখা দেয়। 

সাদুল্লাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাসুদুর রহমান সময় সংবাদকে বলেন, খবর পাওয়ার পরপরই পুলিশ নাছিরকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এ ঘটনায় পরিবারের কেউ থানায় কোনো অভিযোগ করতে আসেনি। পরে পুলিশ বাদী হয়ে ১৫১ ধারায় নাছিরের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করে এবং তাকে পরে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here