আঁটসাঁট পোশাকে বিরক্ত বিমানবালাদের জন্য নতুন নিয়ম

সব বিমানসংস্থাতেই বিমানবালাদের ইউনিফর্ম হিসেবে আঁটসাঁট শার্ট, স্কার্ট আর হাই পরার প্রচলন রয়েছে। তবে দীর্ঘ যাত্রা পথে এই ধরনের আঁটসাঁট পোশাক মোটেও স্বস্তিদায়ক নয়। কিন্তু তারপরও এই ধরনের পোশাক পরেই হাসিমুখে যাত্রীদের সেবা দিতে বাধ্য হন বিমানবালারা।

এসব আঁটসাঁট পোশাকের বদলে বিমানবালাদের আরামদায়ক পোশাক পড়ার নির্দেশ দিয়েছে ইউক্রেনের স্কাইআপ এয়ারলাইনস।

কর্মীদের মধ্যে এক জরিপ চালিয়ে স্কাইআপ এয়ারলাইনস দেখেছে যে দীর্ঘ যাত্রা পথে এ ধরনের পোশাক পরে বিরক্ত নারী বিমানকর্মীরা। তাই সংস্থাটির তরফ থেকে জানানো হয়েছে, বিমানকর্মীরা যাত্রা পথে ট্রাউজার ও স্নিকার পরতে পারবেন।

এ ব্যাপারে, বিমান কর্মী ডারিয়া সোলোমেনায়া (২৭) জানান, হাই হিল পরে ১২ ঘণ্টা ঠাঁই দাঁড়িয়ে থাকার পর হাঁটাই কষ্টকর হয়ে যায়।

এতে স্বাস্থ্য ঝুঁকি রয়েছে জানিয়ে ডারিয়া বলেন, আমার অনেক সহকর্মীই স্থায়ী রোগী হয়ে গেছেন। হাই হিল পরার কারণে তাদের পায়ের আঙ্গুল আর পায়ের নখ, দুইটাই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

এছাড়া আঁটসাঁট স্কার্ট আর হাইহিল পরার আরও সমস্যা আছে বলে জানান তিনি। তার মতে, কোনো বিমানের জরুরি অবতরণের দরকার হলে একজন বিমানকর্মীকেই সবার আগে দ্রুত এগুতে হয়। কিন্তু এ ধরনের পোশাক পরে দ্রুত হাঁটাচলা করা কঠিন বলে জানান ডারিয়া।

এসব বিষয় বিবেচনা করে কর্মীদের জন্য ইউনিফর্ম হিসেবে হাই হিলের বদলে স্নিকার আর স্কার্টের বদলে ট্রাইজার পরার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে ২০১৬ সালে প্রতিষ্ঠিত ইউক্রেনের এই বিমানসংস্থাটি।

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here