হোম আন্তর্জাতিক মাজনকে ২০০ কোটি রুপি জরিমানা করলো ভারত

মাজনকে ২০০ কোটি রুপি জরিমানা করলো ভারত

কর্তৃক স্টাফ রিপোর্টার
30 ভিউস

তথ্য গোপন করার অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রের ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান অ্যামাজনকে ২০০ কোটি রুপি জরিমানা করলো ভারতের প্রতিযোগিতা কমিশন (সিসিআই)। দেশটির ফিউচার কুপনস প্রাইভেট লিমিটেডের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের এ বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানের দুই বছরের পুরোনো চুক্তিকেও আপাতত স্থগিত ঘোষণা করেছে সিসিআই। শুক্রবার (১৭ ডিসেম্বর) এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

৫৭ পাতার নির্দেশনামায় সিসিআই জানিয়েছে, একাধিক নিয়ম লঙ্ঘন করে তথ্য গোপন করার কারণে অ্যামাজনের সঙ্গে ফিউচার কুপনসের চুক্তি পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত স্থগিত থাকবে।

 

ভয়ংকর আসামির মতো দড়ি বেঁধে অসামাজিক কার্যকলাপের অভিযোগে গ্রেফতার ১০ জনকে চট্টগ্রাম আদালতে নিয়ে গেছে পাঁচলাইশ থানা পুলিশ। তবে শুক্রবার (১০ ডিসেম্বর) বিকালে ওই ১০ জনকে ৩০০ টাকা করে জরিমানা করেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট জুয়েল দেবের আদালত।

এর আগে, বৃহস্পতিবার রাতে অসামাজিক কার্যকলাপের দায়ে নাছিরাবাদের একটি বাড়ি থেকে স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতা আবদুল আল আহাদ, তার পাঁচ সহযোগী ও চার তরুণীকে আটক করে পুলিশ।

চট্টগ্রাম আদালত পুলিশের জিআরও এসআই মোহাম্মদ খালেদ বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, নাছিরাবাদ হাউজিংয়ে অনৈতিক কাজের অভিযোগে পাঁচলাইশ থানার নন-জিআর মামলায় (৭৬/২১) ১০ জনকে আদালতে হাজির করা হয়। তারা নিজেদের দোষ স্বীকার করলে আদালত প্রত্যেককে ৩০০ টাকা জরিমানা অনাদায়ে দুই দিনের কারাদণ্ড দেন।

জানতে চাইলে পাঁচলাইশ থানার ওসি জাহেদুল কবির বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘অসামাজিক কাজের অপরাধে তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। তবে তারা কী ধরনের অপরাধ করেছে সেটা আদালত নির্ধারণ করার দায়িত্ব আদালতের। আমরা নিরাপত্তার কথা ভেবে ও আসামিরা যাতে পালাতে না পারে সেজন্য হ্যান্ডকাপ লাগিয়ে সবাইকে দড়িতে বাঁধা হয়েছে।’

 

সিসিআই নিয়ম লঙ্ঘনের ব্যাখ্যা হিসেবে জানিয়েছে, অ্যামাজন ইচ্ছাকৃতভাবে তথ্য গোপন করেছে, যাতে প্রতিযোগিতা কমিশনের ছাড়পত্র পেতে সমস্যা না হয়। এই কারণে অ্যামাজনকে ২০০ কোটি রুপি জরিমানা করেছে সিসিআই। এই সময়ের মধ্যে সিসিআই ওই চুক্তিপত্র আবার খতিয়ে দেখবে। ততদিন পর্যন্ত চুক্তি স্থগিত।

অ্যামাজন মুখপাত্র এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, ভারতের প্রতিযোগিতা কমিশনের এই সংক্রান্ত নির্দেশনামা তারা পড়ে দেখছে। তারপর পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক করা হবে।

২০১৯ সালে অ্যামাজনের সঙ্গে ফিউচার কুপনসের চুক্তিতে ছাড়পত্র দেওয়ার সময় সিসিআই উল্লেখ করেছিল, অধিগ্রহণকারী (এ ক্ষেত্রে অ্যামাজন) ভুল তথ্য দিলে তৎক্ষণাৎ ছাড়পত্র বাতিল করা হবে। গত ২৯ নভেম্বর সুপ্রিম কোর্ট অ্যামাজন দুই সপ্তাহ বাড়তি সময় দিয়েছিল। শুক্রবার এই নির্দেশের পর অ্যামাজনের পদক্ষেপ কী হয় সেটাই এখন দেখার বিষয়।

০ মন্তব্য
0

সম্পর্কিত পোস্ট

মতামত দিন